Tuesday , July 14 2020
Breaking News
You are here: Home / ডাক্তারবাড়ী / যেসব কারণে ভিটামিন খাওয়া জরুরি
যেসব কারণে ভিটামিন খাওয়া জরুরি

যেসব কারণে ভিটামিন খাওয়া জরুরি

স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের জন্য সুষম খাদ্য খাওয়া প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে খাদ্য তালিকা থেকে তৈলাক্ত এবং লবণযুক্ত ফাস্ট ফুড এড়িয়ে চলা উচিত। পাশাপাশি খাদ্য তালিকায় নিয়মিত ভিটামিন ও খনিজসমৃদ্ধ খাবার যুক্ত করা প্রয়োজন।

খাদ্য তালিকায় যত বেশি ভিটামিন ও খনিজ যোগ করা হবে, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং হজমশক্তি তত বাড়বে। চলুন, জেনে নেয়া যাক ভিটামিন খাওয়া কেন জরুরি এবং কোন ভিটামিন শরীরের কী উপকার করে।

ভিটামিন বি ১ : ভিটামিন বি১ কার্বোহাইড্রেট ভেঙে শক্তি উৎপন্ন করে স্নায়ু পদ্ধতি উন্নত করে। কালো শিম, মসুরের ডাল, টুনা মাছ, সূর্যমুখীর বীজ থেকে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন বি১ পাওয়া যায়।

ভিটামিন সি : অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসমৃদ্ধ ভিটামিন সি  ফ্রি রেডিকেলের সঙ্গে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে ডিএনএর ক্ষতি রোধ করে। এ ভিটামিন শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। বিভিন্ন ধরনের রোগ থেকে শরীর প্রতিরোধ করতে এ ভিটামিনের জুড়ি নেই। দিনে কমপক্ষে ৭৫ মিলিগ্রাম থেকে শুরু করে ২০০ মিলিগ্রাম পর্যন্ত ভিটামিন সি খাওয়া উচিত। স্টবেরি, ব্রকলি, লেবুসহ সব ধরনের সাইট্রাস জাতীয় ফলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি পাওয়া যায়।

ভিটামিন ডি : ভিটামিন ডি ক্যালসিয়াম শোষণ করতে সাহায্য করে। শরীরে ভিটামিন ডি’য়ের ঘাটতি হলে হাড়ের ক্ষয় এবং বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার হতে পারে। ভিটামিন ডি’য়ের জন্য স্যামন ,টুনা মাছ এবং বিভিন্ন ধরনের সিরিয়াল খাবার ও দুধ খেতে পারেন। এ ছাড়া সূর্য রশ্মি থেকেও ভিটামিন ডি গ্রহণ করতে পারেন।

আয়রন : আয়রন রক্তশূন্যতা প্রতিরোধ করে। এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ায়। এ ছাড়া এটি মনোযোগ ও মস্তিষ্কের ক্ষমতা বাড়াতেও কার্যকরী। নিয়মিত কমপক্ষে ১৮ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম গ্রহণ করা উচিত। অবশ্য শরীরে আয়রনের পরিমাণ বেশি হলেও সেটি শরীরের ক্ষতি করে। লাল মাংস, মাছ, শাক, মুরগীতে পর্যাপ্ত পরিমাণে আয়রন পাওয়া যায়।

ভিটামিন বি২ : ভিটামিন বি২ শরীরে মেদ ঝরায়। সেই সঙ্গে কার্বোহাইড্রেট এবং প্রোটিন ভাঙতেও সাহায্য করে। বিভিন্ন ধরনের সিরিয়াল খাবার, ভেড়ার মাংস, সবুজ শাকসবজি এবং দুধে ভিটামিন বি২ পাওয়া যায়।

ক্যালসিয়াম : ক্যালসিয়াম হাড়ের স্বাস্থ্য উন্নত করে। এটি হাড়ক্ষয় জড়িত বিভিন্ন রোগের ঝুঁকি কমায়। ৫০ এর কাছাকাছি বয়স হলে দিনে কমপক্ষে ১ হাজার মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম গ্রহণ করা জরুরি। দুগ্ধজাত খাবার থেকে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম পাওয়া যায়। এছাড়া শিমজাতীয় সবজি এবং সবুজ শাকসবজিতেও প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম থাকে। সূত্র: হেলদিবিল্ডার্জড

About দৈনিক সময়ের কাগজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top
error: Content is protected !!