Monday , September 21 2020
Breaking News
You are here: Home / বিনোদন / এবার মেকআপ আর্টিস্টদের পাশে কুসুম শিকদার  
এবার মেকআপ আর্টিস্টদের পাশে কুসুম শিকদার  

এবার মেকআপ আর্টিস্টদের পাশে কুসুম শিকদার  

বিনোদন ডেস্ক-  

করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষা দিতে ঢাকা মেডিকেলের ডাক্তার ও নার্সদের জন্য পিপিই প্রদানের পর এবার করোনার প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া আর্টিস্টদের পাশে দাঁড়িয়েছেন লাক্স তারকা অভিনেত্রী কুসুম শিকদার।

প্রাণঘাতি নভেল করোনা ভাইরাসের কারণে দেশ জুড়ে চলছে সাধারণ ছুটি। অঘোষিত লকডাউন ও সামাজিক বিচ্ছিন্নতার কারণে কাজ না থাকায় বিপাকে পড়েছেন স্বল্প আয়ের শিল্পী-কলাকুশলীরা।  শুটিং বন্ধ রয়েছে গত ১৮ মার্চ থেকে। যার কারণে বেশি বিপদে আছে চলচ্চিত্রের বিভিন্ন কলাকুশলী  বিশেষ করে মেকআপ আর্টিস্টরা।কারণ তাদের মজুরি দৈনিক ভিত্তিতে হয়, তারা অনেক বেশি বিপাকে পড়েছেন।দেশের এই পরিস্থিতিতে তাদেরকে চলতে হচ্ছে কষ্ট করে। ঠিক এ সময় তাদের পাশে এসে দাঁড়ালেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী কুসুম শিকদার।

কুসুম শিকদার জানান, আমি একটি সংবাদপত্রের সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারি যে করোনা কারণে মেকআপ আর্টিস্টদের বর্তমানে দুঃসময় পার করছেন।তারপর আমি নিজ থেকে মেকআপ আর্টিস্টদের সংগঠনের সভাপতি বাবুল ভাইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করি।বাবুল ভাই আমাকে ১৫ জনের লিস্ট দিয়েছেন তাদের সঙ্গে নিজ থেকে যোগাযোগ করে খাবার পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি।

কুসুম শিকদার বলেন,একজন মেকআপ আর্টিস্ট শিল্পের দক্ষতা এবং মেকআপ ব্যবহার করে মডেলের সৌন্দর্যকে আরো আকর্ষনীয় করে তোলেন। তাদের কাজ সাধারণত একজন ফটোগ্রাফার বা ফ্যাশন ডিজাইনার তত্ত্বাবধান করে থাকেন। চলচ্চিত্র, থিয়েটার, টেলিভিশন এবং বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে মেকআপ শিল্পীদের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে।তাদের এই দুঃসময়ে আমি আমার সামর্থ্য অনুযায়ী পাশে দাড়ানোর চেষ্টা করে যাচ্ছি মাত্র।আমি এখন পর্যন্ত ১৫ জন অসচ্ছল মেকআপ আর্টিস্ট লিস্ট পেয়েছি। মেকআপ আর্টিস্ট সংগঠন থেকে।চার জনের পরিবারের একমাস খেয়ে বাচতে পারবেন এমন পরিমাণ খাবার পৌঁছে দেওয়া ব্যবস্থা করেছি।তার যেনো একটি মাস অন্তত ঘরে থাকতে পারেন খাবারের কোনো টেনশন না করা লাগে।আর এটা কোন দান আমি আমার সহকর্মীদের বিপদের সময় আমার সামর্থ্য অনুযায়ী পাশে থাকার চেষ্টা করেছি।আজকে যদি আমি বিপদে থাকতাম তাহলে কি আমার সহকর্মীরা আমার পাশে দাঁড়াতো না।সেই তাড়না থেকে এই প্রচেষ্ঠা করেছি মাত্র।

কুসুম শিকদার বলেন, আমি জানি হয়তো আপনার লজ্জা করে অনেকে জানাবেন না তাদের দুঃসময়ের কথা।তারপর আমি অনুরোধ করবো খাদ্য সংকটে যদি কেউ থাকেন আপনার আমার সঙ্গে যোগাযোগ করবেন, আপনাদের খাবার আমি পৌঁছে দিবো বাড়িতে। আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ দিন শেষে ক্ষুদার্থ অবস্থায় রাত কাটাবেন না।যাদের সঙ্গে আমার পরিচয় নেই বা আমি তাদের সম্পর্কে কোথাও থেকে কোনো ইনফরমেশন পায়নি তারা আমার সঙ্গে যোগাযোগ করতে লজ্জা বা দিধাবোধ করবেন না।আমাকে জানালে আমি অত্যান্ত খুশি হবো।

এর আগে ঢাকা মেডিকেলের ডাক্তার ও নার্সদের সুরক্ষার জন্য পিপিই দিয়ে সকলের প্রশংসা কারেন এই তারকা অভিনেত্রী।

About দৈনিক সময়ের কাগজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top
error: Content is protected !!