Wednesday , October 27 2021
You are here: Home / ঢাকা ও ময়মনসিংহ / সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে রাজবাড়ীতে মানববন্ধন 
সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে রাজবাড়ীতে মানববন্ধন 

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে রাজবাড়ীতে মানববন্ধন 

রাজবাড়ী অফিসঃ প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি ও হেনস্তাকারীদেও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। রাজবাড়ী জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের উদ্যোগে সকাল সোয়া ১০টায় ১ নম্বর পৌর মিলেনিয়াম মার্কেটের সামনে ঘন্টাব্যাপি এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

কর্মসূচিতে রাজবাড়ী প্রেসক্লাব, জেলা প্রেসক্লাব, রিপোর্টার্স ইউনিটি, ডিজিটাল প্রেসক্লাব, বালিয়াকান্দি উপজেলা রিপোর্টার্স ক্লাব, কালুখালী উপজেলা প্রেসক্লাব, উপজেলা প্রেসক্লাব পাংশার সাংবাদিকেরা অংশগ্রহণ করে। একাত্মতা প্রকাশ করে জেলা কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী, ছাত্র ইউনিয়ন, প্রথম আলো রাজবাড়ী বন্ধুসভা।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন রাজবাড়ী জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি ও এটিএন নিউজের প্রতিনিধি লিটন চক্রবর্তী। সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক ও প্রথম আলো পত্রিকার রাজবাড়ী প্রতিনিধি এজাজ আহম্মেদ।

এ সময় বক্তব্য রাখেন, রাজবাড়ী প্রেসক্লাবের সভাপতি চ্যানেল আই এর প্রতিনিধি ও দৈনিক রাজবাড়ী কন্ঠের সপাদক খান মোহাম্মদ জহুরুল হক।প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক মাতৃকণ্ঠ পত্রিকার সম্পাদক খন্দকার আবদুল মতিন,  রাজবাড়ী ডিজিটাল প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক সময়ের কাগজের স্থানীয় সম্পাদক মো. কবির হোসেন, রাজবাড়ী জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সহসভাপতি (সংসাদ) সঞ্জিব দাস, রাজবাড়ী  প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আবু মুসা বিশ্বাস, জেলা প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক (সমকাল ও দেশটিভি) সৌমিত্র শীল, একুশে টেলিভিশনের প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর হোসেন, রিপোর্টার্স ক্লাবের সহ সভাপতি সিটিজেন টাইমস জেলা প্রতিনিধি শামীমা আক্তার মুনমুন, চ্যানেল ২৪এর প্রতিনিধি সুমন বিশ্বাস,জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সোহেল মিয়া প্রমূখ।

বক্তারা বলেন,  রোজিনা ইসলাম দেশের প্রতিযশা সাংবাদিক। তার রয়েছে অনেক খ্যাতি। তাঁর বিরুদ্ধে নথি চুরির অভিযোগ করা হয়েছে। আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। অনুসন্ধানী প্রতিবেদন করার জন্য সবাইকেই তথাকথিত তথ্য চুরি করতে হয়। কারণ প্রশাসনে ঘাপটি মেরে বসে থাকা চোরেরা কখনো তথ্য দিতে চায় না। অবিলম্বে তাকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। তাকে হেনস্তাকারীদের বিচার করতে হবে। নিঃশর্ত মুক্তি না দিলে কঠোর অবস্থানের হুঁশিয়ারিও দেওয়া হয়।

About দৈনিক সময়ের কাগজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top
error: Content is protected !!