Monday , June 21 2021
You are here: Home / খেলাধুলা / পরিবেশ দিবসে ইয়োথ এন্ড স্পোর্টস এর ক্রিকেট টুর্নামেন্ট
পরিবেশ দিবসে ইয়োথ এন্ড স্পোর্টস এর ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

পরিবেশ দিবসে ইয়োথ এন্ড স্পোর্টস এর ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বিশ্ব পরিবেশ দিবস ২০২১ উপলক্ষে ইয়োথ এন্ড স্পোর্টস এর উদ্যোগে আয়োজিত হলো ক্রিকেট টুর্নামেন্ট২০২১। রাজধানীর আগারগাঁ এ গতকাল অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেনছিলেন রিভার এন্ড ডেল্টা রিসার্চ সেন্টারের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এজাজ। বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণীর পর সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বলেন, আমাদের পরিবার থেকে পরিবেশ রক্ষার আন্দোলন শুরু করতে হবে। আমরা আমাদের ভাষা শিখি আমাদের মায়ের কাছে পরিবারের কাছে, সমাজে কি ভাবে চলতে হবে, কার সাথে কেমন ব্যাবহার করতে হবে, কোন খাবার খাওয়া যাবে আর কোনটা খাওয়া যাবে না সব কিছুই শিখি পরিবার থেকে। ঠিক তেমনি পরিবার থেকেই আমাদের শিখতে হবে পরিবেশ দূষণ করে এমন বস্তু কোথায় ফেলা যাবে আর কোথায় ফেলা যাবে না।আমরা যেমন করে আমাদের শরীরের যত্ন নেই তেমন করেই আমাদের পরিবেশের ও যত্ন নিতে হবে এটা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব।তরুণ প্রজন্মের হাত ধরেই শুরু হোক পরিবার থেকে পরিবেশ রক্ষার আন্দোলন।

খেলা পরিচালক কমেটির সদস্য ফাহিম মোহাম্মদ সোয়েব বলেন, বিশ্ব পরিবেশ দিবস কে মাথায় রেখেই এমন আয়োজন করে ইয়ুথ এন্ড স্পোর্টস। সুন্দর পরিবেশ ও মাদক মুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠায় খেলাধুলার বিকল্প নেই।আমাদের গ্রুপের সদস্যরা দেশের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে যায়, নদীতে, ঝর্নার ট্রেইলে পাহাড়ের চুড়ায় চিপস চানাচুর এর প্যাকেট ফেলে সুন্দর পরিবেশ কে নোংরা করে বিভিন্ন ট্রাভেলারেরা, এই রকম দেখেতে চাই না আমাদের সুন্দর বাংলাদেশ কে, পরিবেশ বান্দব বাংলাদেশ দেখতে চাই বলেই আমাদের গ্রুপ সদস্যদের নিয়ে এই ক্রিকেট খেলার আয়োজন।
বিজেতা দলের সেনাপতি ও ইয়ুথ এন্ড স্পোর্টস এর সদস্য দিদারুল আলম বলেন, জয়ের জন্য আমাদের পুর টিম একটা লক্ষ্য নিয়েই খেলেছে, বিজয় আমাদের ছিনিয়ে আনতে হবে এবং আমার পেরেছি, তেমনি এই দেশ আমাদের, দেশ কে সুন্দর রাখার জন্য সবাইকে এক লক্ষ্যে স্থির হয়ে পরিবেশ রক্ষায় নামতে হবে।

আয়োজক কমিটির পিয়াস বলেন, খেলার থেকে উত্তম কোন নেশা হতে পারে না, তাই আমারা খেলার নেশায় হারাতে চাই। আর যারা খেলা পাগল মানুষ তারা কখনই যেখানে সেখানে পলিথিন বা বর্জ ফেলে পরিবেশ নোংরা করতে পারে না এটা আমার বিশ্বাস।

রাকিন বলেন, খেলাধুলা হোক পরিবেশ রক্ষার হাতিয়ার, শহরের যত ছেলে খেলার সাথে জড়িত তারা চাইলেই এই শহরের অর্ধেক এর বেশি পরিবেশ দূষণ কমে যাবে।
স্বপন বলেন, সেই ছোট বেলা থেকে খেলাধুলার সাথে আছি, যেমন খেলা আমাদের সু-স্বাস্থ্য উপহার দেয়, তেমনি বর্জ মুক্ত, পলি মুক্ত পরিবেশ উন্নত চিন্তাশীল এক বাংলাদেশ উপহার দিতে পারে। দূষণের নগরীর লিস্টে ঢাকার নাম আর দেখতে চাই না।

মিরাজুল রানা ও আলামিন বলেন, ইয়ুথ এন্ড স্পোর্টস এর বিশ্ব পরিবেশ দিবস ক্রিকেট টুর্নামেন্ট২০২১ এর মধ্য দিয়ে আমরা ওয়াদা করলাম, আমরা দেহ সুস্থ রাখার জন্য যেমন জিম আর খেলাধুলা করি তেমনি আমাদের পরিবেশ কে সুস্থ রাখার জন্য যত্র তত্র চিপস চানাচুর বা প্ল্যাস্টিক জাতীয় বোতল ফেলবো না।

ফরহাদ হোসাইন পলাশ বলেন সৃষ্টিকর্তা আমাদের উপহার দিল স্বর্গ, আমরা বা আমাদের পুর্বপুরুষ থেকে ধারাবাহিকভাবে সেটাকে পরিণত করলাম নরকে। আজ থেকে ২০০-২৫০ বছর পিছনে তাকান, আমাদের ছিল মিঠা পানির আড়ত, আমাদের ছিল সোনার মাটি যাই ফলাবেন তাই ফলবে। একেক সিজনের একেক পুষ্টি মানের ফল সবজি কিন্তু আজ আমাদের হাহাকার ছাড়া কিছুই নেই। তার প্রধান কারণ আমরা আমাদের পরিবেশ কে ভালোবাসি নাই। পলি যুক্ত মাটি পানিকে করেছি বর্জ ও পলিথিন যুক্ত। কোন এক প্রজন্ম চাইলেই বাংলাদেশ কে আবারো পৃথিবীর স্বর্গে পরিণত করতে পারবে। চাই খেলায় জেতার মত তীব্র ইচ্ছা আর সেক্রিফাইস করার মানুষিকতা।

About দৈনিক সময়ের কাগজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top
error: Content is protected !!