Monday , August 2 2021
You are here: Home / ঢাকা ও ময়মনসিংহ / দাফনের তিনদিন পর লাশ উত্তোলন
দাফনের তিনদিন পর লাশ উত্তোলন

দাফনের তিনদিন পর লাশ উত্তোলন

রাজবাড়ী অফিসঃ রাজবাড়ীতে দাফনের তিনিদিন পর তারেক আলী সর্দারের ছেলে বাবু সরদার (৪৬) নামে এক রিক্সা চালকের মৃত দেহ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। ৬ই জুলাই বিকেলে রাজবাড়ী দক্ষিন ভবানীপুরস্থ্য কবরস্থান থেকে তার লাশ উত্তোলন করা হয়। এ সময় রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আরিফুজ্জামান, অতিরিক পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শেখ শরিফ উজ্জামান, সদর থানার ওসি শাহাদাৎ হোসেন, রাজবাড়ী সদর হাঁসপাতালের জুনিয়র কনসাল্টেন্ট ডাঃ রেজাউল করীম প্রমুখ।
বাবু সরদার রাজবাড়ীর গোদারবাজার ধুঞ্চি এলাকায় তার ফুফাতো ভাই মোমেনার বাড়ীতে থাকতো। গত ৩রা জুলাই সকাল ১১ টার দিকে তার মৃত্যু হয়। পরে রাজবাড়ী দক্ষিণ ভবানীপুর গোরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়। পরবর্তীতে নিহত বাবু সর্দারের ভাই সিদ্দিক সর্দার বাদী হয়ে ৫ই জুলাই রাজবাড়ী সদর থানায় ৩০২/৩৪ ধারায় ৪ জনকে আসামী করে ও ২/৩ জনকে অজ্ঞাত করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। রাজবাড়ী সদর থানার মামলা নং-০৬। বাদী মামলায় উল্লেখ করেন,আমার ভাই গোদার বাজার ধুঞ্চিতে তার ফুফাতো বোন মোমেনার বাসায় থাকতো। গত ৩ই জুলাই ১১ টার সময় আমার ভাই আমাদের বাড়ীতে আসার সময় রিক্সা থেকে পরে অসুস্থ্য হলে স্থানীয়রা রাজবাড়ী সদর হাঁসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিত্যসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। পরে আমরা ধর্মীয় রীতিনীতি অনুসারে তার দাফন সম্পন্ন করি। পরদিন সকালে বাজারে এসে শুনতে পাই গোদার বাজার নিজামুদ্দিনের বাড়ীর সামনে থেকে আমার ভাইকে উল্লেখিত আসামীরা মেরে রিক্সায় তুলে দেয়। পরে হাঁসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎস্যক তাকে মৃত ঘোষনা করে।’

নিহতের আপন ভাই মামলার বাদী সিদ্দিক সর্দার জানান, প্রথমে আমরা আমাদের ভাইকে মারপিটের খবর জানতাম না পরে এ ঘটনা জেনে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা দায়ের করেছি।
মৃত বাবু সর্দারের ছেলে সাগর(১৬) জানায়, আমার বাবাকে গোসল করানোর সময় তার ডান পায়ে অনেক গভীর কাটা দাগ দেখেছি,আর তার মাথার তালুতে কাটা দাগও ছিলো।

মামলার আইও এস আই কামরুজ্জামান শিকদার জানান, মৃত বাবু সর্দারের মৃত্যু হয় গত ৩ ই জুলাই। তার আত্নীয়স্বজনেরা ধর্মীয় রীতিনীতি অনুসারের রাজবাড়ী ভবানীপুর কবরস্থানে দাফন করে। পরবর্তীতে তার ভাই সিদ্দিক সর্দার রাজবাড়ী সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।”
মামলার প্রকৃত সত্য ঘটনা উদ্ঘাটনের জন্য কবর থেকে মৃত দেহ উঠিয়ে সুরতহাল রিপোর্টের জন্য রাজবাড়ী সিনিয়র জুডিশিয়ালি ম্যাজিস্ট্রেট ১নং আমলী আদালত বরাবর আবাদেন করেন মামলার আইও এস আই কামরুজ্জামান শিকদার।এ সময় কবরস্থানে নিহতের পরিবারের স্বজনেরা মামলার প্রকৃত ঘটনা উদ্ঘাটন করে দোষীদের শাস্তীর দাবী জানান।

About দৈনিক সময়ের কাগজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top
error: Content is protected !!