Wednesday , October 27 2021
You are here: Home / বিদেশ / জলবায়ু, পরমাণু ও গ্রহের পরিক্রমার বোঝাপড়ায় মিলল পদার্থের নোবেল
জলবায়ু, পরমাণু ও গ্রহের পরিক্রমার বোঝাপড়ায় মিলল পদার্থের নোবেল

জলবায়ু, পরমাণু ও গ্রহের পরিক্রমার বোঝাপড়ায় মিলল পদার্থের নোবেল

চলতি বছর পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তিন বিজ্ঞানী। তারা হলেন জাপানি বংশোদ্ভূত মার্কিন পদার্থবিজ্ঞানী শুকুরো মানাবে, জার্মানির পদার্থবিজ্ঞানী ক্লাউস হ্যাসেলম্যান ও ইতালীয় পদার্থবিজ্ঞানী জর্জিও পারিসি।

বৈশ্বিক জলবায়ুর কাঠামোগত মডেল নির্মাণ, বৈশ্বিক উষ্ণতার পূর্বাভাস ও তা নির্ভুলভাবে পরিমাপের বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি আবিষ্কার এবং পরমাণু ও গ্রহীয় পরিসরের ভৌত কাঠামো এবং তার ওঠানামার মিথস্ক্রিয়া আবিষ্কারের স্বীকৃতি হিসেবে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন এই তিন বিজ্ঞানী।

তাদের মধ্যে বৈশ্বিক জলবায়ু বিষয়ে অবদানের জন্য নোবেল পেয়েছেন মানাবে ও ক্লাউসম্যান। অন্যদিকে পরমাণু ও গ্রহীয় পরিসর ইস্যুতে নোবেল পেয়েছেন জর্জিও পারিসি।

বরাবরের মতো এবারও নোবেল পুরস্কারের ১ কোটি সুইডিশ ক্রোনার ভাগাভাগি করে নেবেন এ তিন বিজ্ঞানী। পুরস্কারের অর্ধেক, অর্থাৎ ৫০ লাখ ক্রোনার পাবেন মানাবে ও ক্লাউসম্যান ও বাকি অর্ধেক পাবেন পারিসি।

করোনা মহামারির কারণে গত বছরের মতো চলতি বছরও সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে মঙ্গলবার রয়্যাল সুইডিস অ্যাকাডেমি ছোট আকারের অনুষ্ঠান আয়োজনের মাধ্যমে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেছে; গতবারের মতো সেই অনুষ্ঠানে আয়োজক কমিটির বাইরে অন্য কোনও অতিথি উপস্থিত ছিলেন না।

গত বছর পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পেয়েছিলেন ৩ জন। তারা হলেন—যুক্তরাজ্যের রজার পেনরোস, জার্মানির রাইনহার্ড গেনজেল এবং যক্তরাষ্ট্রের আন্দ্রেয়া ঘেজ। তাদের মধ্যে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রজার পেনরোস গবেষণা করেছেন কৃষ্ণ গহবর নিয়ে। অন্য দু’জন আমাদের গ্যালাক্সির কেন্দ্রে অদৃশ্য এবং ভারি এক ধরনের বস্তু আবিষ্কারে মৌলিক অবদান রেখেছেন।

পদার্থ বিজ্ঞানে ১৯০১ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত মোট ১১৪টি নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে এককভাবে মোট ৪৭ জন এই পুরস্কার পেয়েছেন। নোবেলের ইতিহাসে সবচেয়ে কমবয়সী হিসেবে পদার্থবিজ্ঞানে পুরস্কার পেয়েছিলেন অস্ট্রেলীয়-ব্রিটিশ পদার্থবিদ লরেন্স ব্র্যাগ। মাত্র ২৫ বছর বয়সে ১৯১৫ সালে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পেয়েছিলেন তিনি।

টেলিভিশন ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে নোবেল পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান সম্প্রচার করেছে নোবেল ফাউন্ডেশন। বিজয়ীদের প্রাপ্ত পদক ও সনদ পৌঁছে যাবে তারা যেসব দেশের নাগরিক, সেসব দেশের কূটনীতিকদের কাছে। বিজয়ীরা দেশে তাদের কাছ থেকে পদক ও সনদ সংগ্রহ করবেন।

প্রতি বছর শান্তি, সাহিত্য, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, চিকিৎসা ও অর্থনীতি— এই ৬ বিষয়ে যারা বিশেষ অবদান রেখেছেন; তাদের পুরস্কার প্রদান করে সুইডেনভিত্তিক নোবেল ফাউন্ডেশন। আগামী ১১ অক্টোবর পর্যন্ত ২০২১ সালের নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।

উনবিংশ শতাব্দিতে সুইডিশ বিজ্ঞানী আলফ্রেড নোবেল আবিষ্কার করেছিলেন ডিনামাইট নামের ব্যাপক বিধ্বংসী বিস্ফোরক; যা তাকে বিপুল পরিমাণ অর্থ-সম্পত্তির মালিক করে তোলে। মৃত্যুর আগে তিনি উইল করে যান— প্রতি বছর ৬টি বিষয়ে যারা বিশেষ আবদান রাখবেন; তাদের যেন এই অর্থ থেকে পুরস্কার প্রদান করা হয়। ১৯০১ সাল থেকে শুরু হয় নোবেল পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান। চলতি বছরে সোমবার থেকে শুরু হওয়া এই পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান শেষ হবে আগামী ১১ অক্টোবর।

সোমবার (৪ অক্টোবর) চিকিৎসায় নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। চলতি বছর চিকিৎসায় নোবেল পেয়েছেন লেবানিজ বংশোদ্ভূত মার্কিন বিজ্ঞানী আর্ডেম পাতাপুতিয়ান ও মার্কিন বিজ্ঞানী ডেভিড জুলিয়াস। নোবেল পুরস্কারের ১ কোটি সুইডিশ ক্রোনার ভাগাভাগি করে নেবেন এ দুই বিজ্ঞানী।

আগামীকাল বুধবার রসায়নে, বৃহস্পতিবার সাহিত্যে চলতি বছরের নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে। এরপর শুক্রবার শান্তি এবং আগামী সোমবার (১১ অক্টোবর) অর্থনীতি বিজ্ঞানে এবারের নোবেল পুরস্কার জয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।

About দৈনিক সময়ের কাগজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top
error: Content is protected !!