Wednesday , October 27 2021
You are here: Home / ঢাকা ও ময়মনসিংহ / শ্রীপুরে আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে কলেজের জমি দখলের অভিযোগ
শ্রীপুরে আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে কলেজের জমি দখলের অভিযোগ

শ্রীপুরে আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে কলেজের জমি দখলের অভিযোগ

শ্রীপুর গাজীপুর প্রতিনিধি:
গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার বরমী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য হারুন রশিদ বাদলের বিরুদ্ধে বরমী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। জমি পতিত থাকায় প্রথমে মাল্টা ও পেঁপে চাষ করে ওই জমি দখলে নেন।
জানা গেছে, ১৯৮৯ সালে বরমী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ স্থাপিত হওয়ার সময় জমিদাতা প্রয়াত সাবেক চেয়ারম্যান ইসমাইল হোসেন ওই কলেজের নামে ছয় বিঘা জমি রেজিস্ট্রি করে দেন।
এরই মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের জমিতে ইটের গাঁথুনি দিয়ে ঘর নির্মাণের কাজ শুরু করায় বিষয়টি নজরে আসার পর এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।
বরমী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউপি সদস্য হারুনু খন্দকার বলেন, এই জায়গাটি কলেজের নামে থাকলেও কলেজ কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই অনেক আগে থেকেই হারুন রশিদ বাদল জায়গাটি ভোগ দখল করে খাচ্ছে।যা কর্তৃপক্ষ জানার পরেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। বর্তমানে শুনেছি ওই জায়গাতে ইট দিয়ে ঘর নির্মাণ কাজ চলছে।
বরমী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রভাবক সুরুজ্জামান বলেন, কলেজ প্রতিষ্ঠিত করার জন্য সরকারি নিয়ম অনুযায়ী নয় বিঘা জমির প্রয়োজন ছিলো। এজন্য ১৯৮৯ সালে প্রয়াত চেয়ারম্যান মো. ইসমাইল হোসেন ছয় বিঘা জমি লিখে দেয়। এজমির বর্তমান খাজনা কলেজ কতৃপক্ষ বহন করছে। কয়েকদিন হলো জায়গা দখলের খবর শুনছি। দখলের খবর শুনার পর কলেজ কতৃপক্ষ জমিতে গিয়ে কাজ না করার জন্য মৌখিক বাঁধা দিয়ে আসছে।
বরমী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মো. শওকত আলী মৃধা বলেন, এই জমি নিয়ে কলেজের অনেক মিটিংয়ে প্রতিবাদ করেও এর সমাধান পায়নি।
বরমী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সহকারী অধ্যক্ষ মো. নুরুজ্জামান খানের সাথে যোগাযোগ করতে কলেজে গিয়ে তাঁকে পাওয়া যায়নি। তাঁর ব্যক্তিগত নাম্বারে একাধিক বার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।
অভিযুক্ত হারুন রশিদ বাদলের সাথে মুঠোফোনে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি তো আজকাল সাংবাদিকের সাথে কথা বলি না, সাংবাদিকদের সাথে কথা বলা বাদ দিয়েছি। আজকাল তো রিপোর্টারগর লগে কথা বলা বাদ দিছি।তাগর যা মন চায় লেকবার লাইগ্গা দায়িত্ব লিছি।আমার বিরুদ্ধে যা মনে  চায় আপনারা করেন।
শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও তরিকুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর এইটার কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

About দৈনিক সময়ের কাগজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top
error: Content is protected !!