Wednesday , January 26 2022
You are here: Home / ঢাকা ও ময়মনসিংহ / ১ বছরে কয়লার দাম বেড়েছে আড়াই গুন, রাজবাড়ীর ইট ভাটা ব্যবসায়ীরা লোকসানে 
১ বছরে কয়লার দাম বেড়েছে আড়াই গুন, রাজবাড়ীর ইট ভাটা ব্যবসায়ীরা লোকসানে 

১ বছরে কয়লার দাম বেড়েছে আড়াই গুন, রাজবাড়ীর ইট ভাটা ব্যবসায়ীরা লোকসানে 

শহিদুল ইসলাম, রাজবাড়ীঃ
গত এক বছরের ব্যবধানে কয়লার দাম আড়াই গুন বেড়েছে। দাম বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় রাজবাড়ীর ইট ভাটা ব্যাবসায়ীরা চরম আর্থিক লোকসানের মধ্যে পরেছেন। প্রতি টনে ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বেড়েছে কয়লার দাম।এ কারনে এখনও পর্যন্ত অনেক ভাটা মালিক তাদের ভাটায় ইট পোড়ানো শুরু করতে পারেননি। অন্যদিকে নিষিদ্ধ কাঠে পোড়ানো ইট ভাটা গুলো প্রশাসনের নজর এড়িয়ে পোড়াচ্ছেন দেদারছে ইট। এই ভাটা গুলো বন্ধে জেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপের দাবি জানানিয়েছেন কয়লায় পোড়ানো ভাটা মালিকেরা।
জানাগেছে, রাজবাড়ীতে ৮৩ টি ইটভাটা রয়েছে। এর মধ্যে অর্ধেক ইট ভাটা কাঠ পোড়ানো থেকে সড়ে এসে কয়লা দিয়ে ইট পোড়ানো শুরু করেছেন। কিন্তু প্রথম দিকে কয়লায় ইট পোড়ানো খরচ কম হলেও বর্তমানে কয়লার অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধিতে ইট তৈরীতে হিম শিম খাচ্ছেন ভাটা মালিকরা। গত বছর শুরুতে প্রতি টন কয়লার দাম ছিল ৯ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকার মধ্যে। কিন্তু কয়লার দাম অস্বাভাবিক ভাবে বাড়তে থাকায় বর্তমানে এর বাজার দর দ্বাড়িয়েছে প্রতি টন ২৩ থেকে ২৪ হাজার টাকায়। এতে কয়লায় ইট তৈরীতে অত্যাধিক খরচ হচ্ছে। খরচ অনুযায়ী ইটের বাজার দর কম হওয়ায় লোকসানে পরেছেন মালিকেরা। প্রতি হাজার ইট তৈরী করতে লেবার থেকে শুরু করে কয়লা ও অন্যান্য খরচ সহ সাড়ে ৭ থেকে ৮ হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। কিন্তু যেসব ইটভাটা গুলোতে কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানো হচ্ছে তাদের হাজারে খরচ হচ্ছে ৫ হাজার থেকে ৬ হাজার টাকার মধ্যে। এ কারনে কাঠে পোড়ানো ইটভাটার মালিকেরা কম দামে ইট বিক্রি করতে পারছেন। আর কয়লায় পোড়ানো ভাটা মালিকেরা ইট বিক্রি করতে পরেছেন বিপাকে। তাই অবৈধ ভাবে প্রশাসনকে ফাঁকি দিয়ে কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানো বন্ধ করতে জেলা প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান কয়লা বা জিগ জ্যাগ ভাটা মালিকরা।জেলার সব ইট ভাটা গুলো কাঠ না পুড়িয়ে কয়লায় রুপান্তর করা হলে লোকসান কমে আসবে তাদের।
কয়লায় পোড়ানো ইএসবি, এসআইবি ও এফএবি ইট ভাটার মালিক, আবুল কালাম আজাদ, আজিবর সরদার ও কামাল মিয়া বলেন, গত বছরের চাইতে এবছর প্রায় আড়াই গুন বেড়েছে কয়লার দাম।একারনে ইট তৈরীতে পরেছেন লোকসানে। প্রতি টন কয়লা গত বছর যেখানে প্রতি টন কয়লা ৯ হাজার টাকার মধ্যে ছিল, এবছর সে কয়লা টন প্রতি ১৫ হাজার টাকা বেড়ে কিনতে হচ্ছে ২৩ থেকে ২৪ হাজার টাকায়। এতে প্রতি হাজার ইট তৈরী করতে খরচ পরছে সাড়ে আট হাজার টাকারও বেশি। কিন্তু কাঠ দিয়ে পোড়ানো ইট তৈরীতে প্রতি হাজারে খরচ হচ্ছে ৫ থেকে ৬ হাজার টাকার মধ্যে এ কারনে বাজার দরের পার্থক্যে বিপাকে পরেছেন কয়লা ভাটা মালিকেরা। কাঠ দিয়ে পোড়ানো ভাটা বন্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপের দাবি জানান কয়লা ভাটা মালিকেরা।
রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম  তিনি বলেন, কয়লার দাম বেশি হওয়ায় কয়লায় পোড়ানো ইটভাটা মালিকদের খরচ বেশি হচ্ছে। তবে কোন ইট ভাটায় কাঠ পুড়িয়ে ইট তৈরী করা হলে তাদেও বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে আইনের আওতায় অনা হবে ভাটা মালিকদের।

About দৈনিক সময়ের কাগজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top
error: Content is protected !!