Friday , April 12 2024
You are here: Home / চট্টগ্রাম ও সিলেট / বিদায়বেলায় ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত ব্রাহ্মণপাড়ার ইউএনও সোহেল রানা
বিদায়বেলায় ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত ব্রাহ্মণপাড়ার ইউএনও সোহেল রানা

বিদায়বেলায় ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত ব্রাহ্মণপাড়ার ইউএনও সোহেল রানা

ব্রাহ্মণপাড়া (কুমিল্লা) প্রতিনিধি:
কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সোহেল রানাকে উপজেলা পরিষদ ও বিভিন্ন শিক্ষা, সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে বিদায়ী সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। শনিবার (৭ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হন ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইউএনও সোহেল রানা। এসময় তাঁকে উপজেলা প্রশাসন সহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে ক্রেস্ট ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।
উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুহাম্মদ আবু জাহেরের সভাপতিত্বে ও ব্রাহ্মণপাড়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জহিরুল হকের সঞ্চালনায় বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ কাউছার হামিদ সহ ৮ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ, উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ, সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
সাহেবাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান মনির হোসেন চৌধুরী বলেন, উপজেলা সৃষ্টির পর থেকে ব্রাহ্মনপাড়া অন্ধকারাচ্ছন্ন ও পশ্চাৎপদ একটি জনপদ ছিল। বিদায়ী ইউএনও সোহেল রানা স্যার আমাদের যে আলোর পথ দেখিয়েছেন তা দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে৷ আমাদের জনপ্রতিনিধি হওয়ার কথা ছিল যুগের বেশি সময় আগে৷ কিন্তু আশুভ শক্তির কারণে সেটি হয়ে ওঠেনি। সকল ভয় ভীতির উর্ধে থেকে তিনি একটি সুষ্ঠু ভোটের আয়োজন করে জনগণের হাতে প্রতিনিধি নির্বাচনের যে ক্ষমতা তুলে দিয়ে গেছেন তা ইতিহাস হয়ে থাকবে।
মালাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল্লাহ আল মামুন নির্বাচনের স্মৃতি রোমন্থন করতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন। তিনি বলেন, “আমি ভিন্ন দল ও মতাদর্শের হওয়ার হওয়ার কারণে নির্বাচন ও নির্বাচন পরবর্তী অনেক ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছি। কিন্তু ইউএনও স্যার আমার প্রতি অবিচার হতে দেননি। আর তাইতো আমরা ৮ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা এক হয়ে জনগনের সেবা করার সাহস পেয়েছি”।
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ কাউছার হামিদ বলেন, “উপজেলার সর্বস্তরের মানুষ একজন সরকারি কর্মকর্তাকে ১৫ দিন ধরে বিদায় সংবর্ধনা জানাচ্ছে এটি সচরাচর দেখা যায়না। কিন্তু ব্রাহ্মণপাড়ার সুযোগ্য ইউএনও স্যারের ক্ষেত্রে এটি ঘটেছে। এর পেছনে রয়েছে ইউএনও স্যারের জনসম্পৃক্ততা। তিনি উপজেলার সর্বস্তরের মানুষের জন্য তিনি নিজেকে আত্মনিয়োগ করেছিলেন জন্যই এটি সম্ভব হয়েছে। জ্ঞান, সততা, দক্ষতা ও নেতৃত্ব গুণে তিনি ছিলেন অনন্য । আমি তাঁর কাছ থেকে যা শিখেছি তা আমার জীবনের পাথেয় হয়ে থাকবে।
উপজেলা চেয়ারম্যান ও অনুষ্ঠানের সভাপতি আলহাজ্ব আবু জাহের বলেন, “এমন একজন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছি যিনি চ্যালেঞ্জ নিতে ভালোবাসেন। জানসেবা ও ন্যায়বিচার একটি কঠিন চ্যালেঞ্জিং বিষয়। একজন সৎ ও সাহসী উপজেলা নির্বাহী অফিসার থাকায় উপজেলা পরিষদের পক্ষে সেটি অনেকটাই সহজ হয়েছে৷ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে আমি ব্রাহ্মণপাড়াবাসীর পক্ষ থেকে বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসাররে কৃতজ্ঞতা ও শুভ কামনা জানাই”।
 বিদায়ী ইউএনও সোহেল রানা বলেন, “ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার যে ম্যান্ডেট নিয়ে ইউএনও হিসেবে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় যোগদান করেছিলাম, আজ দুই বছর দশ দিন পর বিদায়বেলায় মনে হয়েছে, কিছুটা হলেও ম্যান্ডেট পুরণ করতে সমর্থ হয়েছি৷ ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা একটি ব্যাপক জিনিস এটি পুরোপুরি বাস্তবায়ন করা এবং এ নিয়ে সন্তুষ্টি অনেক কঠিন। ন্যায়ের পক্ষে কাজ করতে গিয়ে জনগণ ও জনপ্রতিনিধি সর্বপরি উপজেলার প্রতিটি দপ্তর প্রধান যেভাবে সাহায্য করেছেন সেজন্য বিদায়বেলায় আমি কৃতজ্ঞ”।

About দৈনিক সময়ের কাগজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top
error: Content is protected !!